ঠাকুরগাঁওয়ে ১৪৪ ধারা জারির পরও জমিতে ঘর তোলার অভিযোগ

0

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি ঠাকুরগাঁওয়ের সদর উপজেলার রুহিয়া থানাধীন আখানগর ইউপির খোকা ডাঙ্গী গ্রামের এক জমিতে আদালত থেকে ১৪৪ ধারা জারি করলেও জমিতে সোনারুল,কোরবান গং খড়ির ঘর নির্মাণ করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

অভিযোগকারী রবিউল ইসলাম বলেন,তার নানা শইফুদ্দিন মারা যাবার পর তার নানী মৃত আমেনা বেগম তাদের দুই ভাই ও তার মা খালার নামে ২০.৩ শতক জমি লিখে দেন।রবিউলের মা,খালা তাদের সম্পদের কিছু অংশ দান করে দিলেও তারা দুই ভাই ৬০৮৫ নং ও ৬০৮৬ দাগে ৯ শতক জমি পান।কিছু জমি ডোবা হওয়ায় রবিউল ৫ শতক ডোবা জমি ভরাট করেন।এতে সেই জমিতে চোখ পড়ে সোনারুল ও কোরবানদের।গত ১১ ডিসেম্বর সোনারুল গং সেই জমি দখল করতে যায় এতে রবিউলরা বাধা দিতে গেলে রবিউলের মাথা ও শরীরের স্পর্শ কাতর জায়গায় উপর্যুপরি আঘাত করে।পরে তাকে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এরপর রবিউল কোর্টে একটি মামলা দায়ের করে।মামলা দায়েরের পরও তাদের ক্রমাগত মেরে ফেলার হুমকি ধামকি আসতে থাকে।উপয়ান্তর না পেয়ে রবিউল ঠাকুরগাঁওয়ের বিজ্ঞ সদর সিনিয়র সহকারী জজ আদালতে জমির উপর ১৪৪ ধারা জারির আবেদন করেন।বিজ্ঞ আদালত আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ১৪৪ ধারা জারি করে।যার মামলা নং-এমপি ২৩/২০২১।কিন্তু আদালতের নিষেধাজ্ঞা অবজ্ঞা করে সোনারুল গং সেই জমিতে খড়ি রাখার ঘর বানাচ্ছে। শুক্রবার(২৩ এপ্রিল) সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় সেই জমিতে টিনের ছাপড়া বানানো হচ্ছে।

এব্যাপারে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই শফিক বলেন,এখনও কোন অভিযোগ পাইনি।অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে