কালকিনিতে হত্যা মামলার সাক্ষীকে অপহরণ, ৫ দিন পর লাশ উদ্ধার

0

রাকিব হাসান, মাদারীপুর।স্বামী-স্ত্রী হত্যা মামলার সাক্ষীকে অপহরণ করার , ৫ দিন পর লাশ উদ্ধার। আর তারা হলেন মোয়াজ্জেম সরদার ও তার স্ত্রী মাকসুদা বেগম।

মাদারীপুর জেলার কালকিনি উপজেলাতে অপহরণের ৫ দিন পরে স্বামী-স্ত্রীর হাত-পা বাঁধা মরদেহ উদ্ধার করে থানা-পুলিশ।

শুক্রবার সকালে উপজেলার আলিনগর ইউনিয়নে সস্তাল এলাকার বেপারী বাড়ির পিছনে একটি খাল থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয় বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পারিবারিক তথ্য অনুযায়ী জানা গেল, গত সোমবার রাত আনুমানিক ২ঃ৪৫মিনিটের দিকে মোয়াজ্জেম সরদার (৫৫)ও তার স্ত্রী মাকসুদা বেগমকে (৫০) চেতনানাশক ওষুধ খাইয়ে অজ্ঞান করে অপহরণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া যায়। তারা কালকিনি উপজেলার আলিনগর ইউনিয়নের কোলচরি স্বস্তাল এলাকার বাসিন্দা।

স্থানীয়ও লোকজনেরা বলেন, ছেলে সন্তানদের সাথে রাতের খাবার খাওয়া শেষে সবাই ঘুমানোর জন্য যার যার জাগায় চলে যায়। কিন্তু সকালে তার মেয়ে ঘরের দরজা খোলা পায় এবং তার বাবা-মা কাউকে ঘরে দেখতে পায়নি। সকাল থেকে খোঁজ-খবর করেও কোথাও তাদের সন্ধান পাওয়া যায়নি। পরে এই ঘটনায় কালকিনি থানায় একটি মামলা করা হয়।
এছাড়াও মোয়াজ্জেম সরদারের মেয়ে বলেন, আমার বাবা মাকে পূর্বের হত্যা মামলার সাক্ষী থাকার জের ধরে অপরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে এর আমি ফাঁশি চাই।

পরিবারের দাবি, তাদের কাছে দুই লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করা হয়েছিল। জানা গেছে, নিহত মোয়াজ্জেম একটি হত‍্যা মামলার সাক্ষী ছিলেন।
এ ব্যাপারে কালকিনি থানার অফিসার ইনচার্জ ইশতিয়াক আশফাক রাসেল বলেন, অপহরণের ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছিল। অপহরণ চক্রকে ধরার জন্য অভিযান চলছে।

এছাড়া আমরা মাদারীপুর, ফরিদপুর এবং নড়াইল জেলায় অভিযান চলানো হয়েছে। এর মধ‍্যেই লাশ উদ্ধারের ঘটনা শুনতে পেয়ে আমরা ঘটনা স্হানে যাই।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে