ঠাকুরগাঁওয়ে এক অন্তঃসত্ত্বা মহিলাকে হত্যা করে গলায় ফাঁস ,

0

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধিঃ ঠাকুরগাঁও জেলার রুহিয়া থানার ২ নং আখানগড় ইউনিয়নের মহেশ পুর( বর্মতৈাল) গ্রামের আজিজুল হক এর স্ত্রীময়না বেগম (২৬)আত্মহত্যা করেছে বলে আজিজুল অভিযোগ করেন।
বৃহস্পতিবার ( ৮ এপ্রিল) সকাল ৭ টায় সময় নিজ শোয়ার ঘরের বাশের সাথে গলায় ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার ঘটনা ঘটে।

মৃত ময়না বেগমের পিতা রফিকুল ইসলাম অভিযোগ করে বলেন, আমা মেয়েকে হত্যা করে ফাঁসিতে ঝুলানো হয়েছে। তিনি আরও বলেন, আমার মেয়েকে প্রায় নির্যাতন করত আজিজুল এবং এর আগেও একাধিক বার মেয়েটাকে মারপিট করে আমার বাসায় পাঠাইছিল আমি নিশ্চিত আমার মেয়েকে হত্যা করা হয়েছে আমি কু্ক্ষ্যাত খুনির বিচার চাই।

ময়নার স্বামী আজিজুল হক এর বড় ভাই মালেক জানান, সকাল ৭ টার সময় হঠাৎ বাড়িতে চেচামেচি শুনতে পায় তখন সবাই বলে এখনো বেঁচে আছে তৎক্ষনাৎ ময়না বেগমের দেহ ফাঁসি থেকে নামানো হয় সাথে সাথে ডাক্তার কে আনতে যায় কিন্তু তার আগে ময়নার মৃত্যু হয়।

২ নং আখানগড় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি রোমান বাদশা বলেন,আমি ফাঁসির কথা শুনে ঘটনা স্থলে আসি এবং রুহিয়া থানা অফিসার ইনচার্জ চিত্ত রঞ্জন রায়কে অবগত করি।

২ নল আখানগড় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম বলেন, বিষয় টা আমিও শুনেছি এবং রুহিয়া থানায় অবগত করছি।
রুহিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা চিত্ত রঞ্জন রায় বলেন, আমারা লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হবে।

তিনি আরও বলেন একটা এ বিষয় ৪ জনের নাম যথা আজিজুল হক, আব্দুল মালেক, দবিরুল ইসলাম ও জহুরা বেগম নামে হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে । তবে মেয়ের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে ময়নাকে হত্যা করা হয়েছে। ময়না তদন্তের পরে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে