সুনামগঞ্জের নোয়াগাও গ্রামে হিন্দুদের বাড়িঘরে হামলায় ঘটনায় দোষীদের শাস্তির দাবীতে হিন্দু বৌদ্ধ ও খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের মানববন্ধন

0

আমির হেসেন, সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃঃ সুনামগঞ্জের শাল্লার নোয়াগাও গ্রামে হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়িঘরে হামলা ও লুটপাঠের ঘটনায় দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার বিকেলে বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ,খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ সুনামগঞ্জ জেলা শাখারসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের ব্যানারে ট্রাফিক পয়েন্টে এ মানববন্ধন কর্মসূচী পালিত হয়েছে। বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ,খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ সুনামগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি দীপক চন্দ্র ঘোষের সভাপতিত্বে সংগঠনের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এড. অনুপ কুমার ধরের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নুরুল হুদা মুকুট।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ,খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অধ্যাপক ড. নিম চন্দ্র ভৌমিক,জেলা আওযামীলীগের সহ সভাপতি রেজাউল করিম শামীম, এড. খায়রুল কবির রুমেন,ইশতেয়াক আহমদ শামীম,সদর ্উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি হাজী আবুল কালাম,জেলা কমিটির শ্রম বিষয়ক সম্পাদক এড. আজাদুল ইসলাম রতন,সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার হাজী নুরুল মোমেন,বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ,খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সম্পাদক এড. মলয় চক্রবর্তী রাজু, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা তনুজ কান্তি দে,বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ,খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ সুনামগঞ্জ জেলা শাখার সাধারন সম্পাদক এড.বিশ^জিৎ চক্রবতীৃ,সাংগঠনিক সম্পাদক এড. রাধাকান্ত সূত্রধর জেলা পূজা উদযাপন পরিসদের সাধারন সম্পাদক বিমল বণিক,আওয়ামীলগি নেতা এড,রুহুল তুহিন,সাবেক পৌর কাউন্সিলর আরতি তালকদার কলি,সুনামগঞ্জ জেলা সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি ও মোহনা টেলিভিশনের জেলা প্রতিনিধি কুলেন্দু শেখর দাস তাং,,তৃণমূল নারীনেত্রী দিলারা বেগম,এড. সবেন্দ্র দেবনাথ বিপ্লব,পৌর কাউন্সিলর চঞ্চল কুমার লৌহ,মহানাম ব্রত চক্রবর্তী লিটন,জেলা অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি একে মিলন আহমদ,স্বপন কুৃমার দাস,চন্দন কুমার দাস প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সুনামগঞ্জ আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নরুল হুদা মুকুট বলেছেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে ১৯৭১ সালে প্রতিটি ধর্মের মানুষের অংশগ্রহনে দীর্ঘ নয়মাস মরণপণ লড়াই করে অনেক রক্তের বিনিময়ে অর্জিত হয়েছিল সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির এই বাংলাদেশ। গত ১৭ই মার্চ জাতির পিতার শত জন্মবার্ষিকীর দিনে এক হিন্দু যুবকের ফেইসবুক স্ট্রেটাসে হেফাজতের মামুনুল হককে কমেন্ট করা নিয়ে একটি সংখ্যালঘু গ্রামের এমন ন্যক্কারজনক ঘটনা ছিল সম্প্রীতিকে নষ্ট করার একটি হীন চক্রান্ত। তিনি এই ঘটনার সাথে মদদদাতাসহ যে বা যারাই জড়িত তাদেরকে দ্রুত আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্তি প্রদানের দাবী জানান।

তিনি আরো বলেন,এই দেশে সংখ্যালঘু বলে কেউ নেই,সংখ্যালঘু তারাই যারা ধর্মের দোহাই দিয়ে অন্য ধর্মের মানুষের উপর হামলা ও নির্যাতন করে। ইসলাম ধর্ম শান্তির ধর্ম এই ধর্মে অন্য কারো ধর্মের উপর আঘাত করা সমর্থন করে না। এই নোয়াগাও গ্রামের অবলা নারী ও মুক্তিযোদ্ধাদের পরিচয় জানার পরও যারা তাদের উপর হামলা করেছে তারা স্বাধীনতায় বিশ্বাস করে না বলেও তিনি অভিযোগ করেন।

এই সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠি জাতির জনকের শত জন্মবার্ষিকীকে সামনে রেখে হেফাজতের উস্কানীমূলক বক্তব্য বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রপ্রধানদের আগমনকে বাধাগ্রস্ত করতেই পরিকল্পিতভাবেই এই হামলা,লুটপাঠ ও ভাংচুরের মতো ঘটনা ঘটিয়েছিল বলে মনে করেন তিনি। এই সম্প্রীতির জেলায় আগামেিত কেহ সাম্প্রদায়িকতা সৃষ্টির অপচেষ্টা করলে মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের সকল মানুষ তা প্রতিরোধ করবে বরেও তিনি হুশিযারী উচ্চারন করেন। এদিকে নোয়াগাওঁ গ্রামে হিন্দু সম্প্রদায়ের বাড়িঘরে হামলা ভাংচুর ও লুটপাঠের ঘটনার প্রতিবাদে এবং দোষীদের গ্রেপ্তারের দাবীতে পৃথক আরেকটি মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার বিকেল ৩টায় বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু যুব মহাজোট ও ছাত্র মহাজোটের আয়োজনে শহরের ট্রাফিক পয়েন্টে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু যুব মহাজোট দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা শাখার সভাপতি শোভন দেব এর সভাপতিত্বে এ সময় বক্তব্য এড. রাধাপদ সূত্রধর,পশ্চিম বীরগাওঁ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মো. নুর খান,যুব মহাজোটের সাবেক সাধারন সম্পাদক শৈলেন সূত্রধর,জেলা ছাত্রলগি নেতা দীপ্ত বণিক,জেলা ছাত্র মহাজোটের সভাপতি জনি বণিক,সংগঠনের দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা শাখার সভাপতি সুমন সূত্রধর, জেলা কমিটির যুগ্ম আহবায়ক সুব্রত দাস ,দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলগিনেতা সুদীপ কুমার দাস,ছাত্রলগি নেতা সুদর্শন ব্যানার্জী,টিএস এস মৌলভীবাজার প্রতিিিনধ কল্লোল দাস প্রমুখ।

নেতৃবৃন্দরা বলেন,গত ১৭ই মার্চ নোয়াগাও গ্রামে হিন্দুদের বাড়িঘরে হামলা ,ভাংচুর ও লুটপাঠের ঘটনার সাথে জড়িত সকল দোষীদের দ্রুত গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদানের জন্য সরকারের প্রধানমন্ত্রী ও স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনের উর্ধবতন কর্তৃপক্ষের নিকট দাবী জানান। পাশাপাশি সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের নিরাপত্তা বিধানের আহবান জানান।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে