প্রেমিককে তুলে নিয়ে গিয়ে প্রেমিকার বাবার মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতনের অভিযোগ

0

রাসেল ইসলাম, লালমনিরহাট প্রতিনিধিঃ লালমনিরহাটে প্রেমিককে তুলে নিয়ে গিয়ে প্রেমিকার বাবার মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে।

জানাগেছে, জেলা সদরের বড়বাড়ি ইউনিয়নের, খেদাবাগ গ্রামের গুলজার হোসেনের ছেলে কলেজ পড়ুয়া অনার্স চতুর্থ বর্ষের ছাত্র আবুল কালাম সনেট(২৩) দীর্ঘদিন যাবত একই গ্রামের কোরানটারী এলাকার এক শিক্ষকের ১০ম শ্রেণী পড়ুয়া মেয়ের সাথে প্রেমের সম্পর্ক করে আসছিল।

গত ০৩ মার্চ ২০২১ তারিখে আনুমানিক ৬ টায় তার প্রেমিকার বাড়ী সংলগ্ন রাস্তায় পৌঁছানো মাত্র পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে মেয়ের বাবা স্কুল শিক্ষক মিজানুর রহমান (৪৫), ছামিউল হক (২৩), সিদ্দিক হোসেন, কাফি মিয়া ও মন্টু মিয়া সহ অজ্ঞাতনামা আরো ৪/৫ জন পাশেই প্রেমিকার বাড়ীতে উঠিয়ে বাঁশের লাঠি ও রড দিয়ে বেধড়ক মারপিট করে। তার সাথে চলে, সন্ধ্যা ৬টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত বর্বর নির্যাতন। পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে উদ্ধার করে সনেটকে। এমনটাই জানিয়েছেন ভুক্তভোগী ছাত্রের মা সাঞ্জুমা বেগম।

স্থানীয় ও সনেটের পরিবারের সূত্রে জানাযায়, সনেটের প্রেমিকা কিছুদিন আগে বিয়ের দাবী নিয়ে সনেটের বাড়ীতে আসে। তখন সনেটের মা তার বিয়ের উপযুক্ত বয়স না হওয়ায় অনেক বুঝিয়ে ঐ মেয়েকে তার পরিবারের নিকট পৌছিয়ে দেন।

বিষয়টি নিয়ে অভিযোগকারী সনেটের মা সাঞ্জুমা বেগম ও নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক এলাকাবাসী বলেন, সনেটের সঙ্গে বর্বর নির্যাতন চালানো হয়েছে, দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়া হোক।

এদিকে ওই শিক্ষক পরিবারের সাথে তার বাড়িতে গিয়ে স্বচ্ছ ও প্রান্ত নামের দুই শিশু এসে সাংবাদিকদের বলেন, বড় আব্বু থানায় আর বড় আমি অসুস্থ তিনি বের হতে পারবেন না। পরে সাংবাদিকরা ওই পরিবারের কোন সদস্যের সাথে যোগাযোগ করতে ব্যর্থ হন।

এ বিষয়ে লালমনিরহাট সদর থানার অফিসার ইনচার্জ শাহা আলমের সাথে কথা বললে তিনি জানান, একটি মামলা হয়েছে, অভিযুক্ত স্কুল শিক্ষক মিজানুর রহমান (গ্লাড) গ্রেফতার রয়েছেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে