কুমিল্লা-সিলেট আঞ্চলিক মহা-সড়কের দেবীদ্বার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সাথে বাসের ধাক্কা নিহত- ১ আহত ১৫

0

এ,আর,আহমেদ হোসাইন
(দেবীদ্বার-কুমিল্লা)প্রতিনিধি//

কুমিল্লা-সিলেট আঞ্চলিক মহা সড়কের দেবীদ্বারে চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা তিশা পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সঙ্গে ধাক্কা লাগে। এতে বাসের সামনের অংশ দুমড়ে যায়। এ ঘটনায় চালকসহ অন্তত ১৫ যাত্রী গুরুতর আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

বৃহস্পতিবার ভোরে কুমিল্লা-সিলেট আঞ্চলিক মহাসড়কের বারেরা এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা আহতদের উদ্ধার করে দেবীদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতলে প্রেরণ করেন। অপর দিকে দূর্ঘটনার পর থেকে সড়কের উভয় পাশে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। বেলা ২টা পর্যন্ত হাইওরেয় পুলিশ যানজট নিরসনে কাজ করতে দেখা যায়।

এদিকে, আহতদের মধ্যে সকাল সাড়ে ১১ টায় কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মাহবুব আলম (২০) নামে ১ যাত্রী মারা যাওয়ার সংবাদ পাওয়া গেছে। তাঁর বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগরের বাঙ্গরায় বলে জানা গেছে।

দেবীদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সেবা নেয়া আহতরা হলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বাঞ্ছারাম্পুর উপজেলার পাঠানতলী গ্রামের আবিদ আলীর ছেলে মো. ইকবাল হোসেন(৪২), কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার ধামঘর গ্রামের ছিদ্দিকুর রহমানের পুত্র শরিফ (২১), একই উপজেলার দয়ারাম্পুর গ্রামের আলী মিয়ার পুত্র জাহাঙ্গীর আলম (৩৪), যাত্রাপুর গ্রামের নজরুল ইসলাম’র কণ্যা খুকিয়া বেগম(৩০), সজিব মিয়ার কণ্যা রাশেদা বেগম(২০), রামচন্দ্রপুর গ্রামের লিটন মিয়ার কণ্যা নাছিমা বেগম (৩০), দেবীদ্বার উপজেলার বড়আলমপুর গ্রামের জয়নাল আবেদীনের পুত্র শাহাজাহান(২৭) ও সাইচাপাড়া গ্রামের নজরুল ইসলাম’র পুত্র আবুল কালাম(২০)।

বেলা ২টায় দেবীদ্বার থানার ওসি আরিফুর রহমান’র সাথে সর্বশেষ পরিস্থিতি নিয়ে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, ভোর অনুমান ৪ টার সময় এ দুর্ঘটনা ঘটে। ৫ জনকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। বাকিরা দেবীদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন। তবে আহতদের মধ্য থেকে মৃত্যুর বিষয়ে কোন খবর তিনি জানেননি বলে জানান।

একই সময়ে মিরপুর হাইওয়ে ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক মৃদুল কান্তি কুরি’র সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, ভোরে চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেললে গাছের সঙ্গে বাসের ধাক্কা লাগে। এতে অন্তত ১৫ যাত্রী আহত হয়। গুরুতর আহত অন্তত ৫ জন যাত্রীকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। বাসটিকে উদ্ধার এবং সড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক করতে আমরা কাজ করে হচ্ছি। ব্যাস্ততার কারনে কুমেক হাসপাতালে পাঠানো রোগিদের খোঁ নেয়া সম্ভব হয়নি।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে