বিনোদপুর ইউপি নির্বাচনে লড়ছেন বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান আহসান হাবিব টিটেন বাবু

0

জাগোবার্তা নিউজ : সারাদেশে পৌরসভা নির্বাচন শেষ হলেই ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। পথে প্রান্তে বইতে শুরু করেছে নির্বাচনী হিমেল হাওয়া।

চায়ের কাপে ঝড় তুলেছে পাড়া, মহল্লা ও মোড়ে থাকা ছোট-বড় চায়ের স্টলগুলোতে। আঞ্চলিক ও জাতীয় গণমাধ্যমগুলোয় প্রধান প্রধান শিরোনাম হচ্ছে শীত ও নির্বাচনী খবরা-খবরের।

কঠিন ব্যস্ততম সময় পার করেছেন বিভিন্ন দলীয় প্রার্থী, কর্মী ও সমর্থনকারীরা৷ এরই ধারাবাহিকতায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার বিনোদপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে জোরে শোরে প্রচার প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন, চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, শিবগঞ্জ উপজেলা শাখার কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক এবং শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা লালচাঁদ বিশ্বাসের সুযোগ্য সন্তান মো. আহসান হাবিব ওরফে টিটেন বাবু। টিটেন বাবু নামেই তিনি বেশি পরিচিত।

তিনি তার উন্নয়ন কাজের মাধ্যমে জোরালো ভাবে জনগণের দরজায় কড়া নাড়ছেন ও জনসাধারণের পাশে থেকে সহযোগিতা করে আসছেন তিনি। এ প্রতিবেদকের সাথে এক সাক্ষাৎকারে উঠে এসেছে তার ব্যক্তিত্ব ও জনকল্যাণমুখী নানান গল্প।

আহসান হাবিব টিটেন বাবু

আহসান হাবিব টিটেন বাবু বলেন, ১৯৯৫ সালের ৩’জুন বিরোধী দলীয় নেতা-কর্মীরা আমার দুই হাত ও দুই পা ভেঙ্গে দেয় এমনকি চোখ উপড়ে ফেলার চেষ্টা করে। আমাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রাজশাহী থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা প্রেরণ করেন। অবশেষে আল্লাহুপাকের অশেষ রহমতে বেঁচে ফিরে আসি।

তিনি আরও জানান, বিনোদপুরবাসীর দোয়া, ভালোবাসা ও সর্বসম্মতিক্রমে জনসম্মুখে ঘোষণা দিই আমি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছি। জনগণও আমাকে কাছে টেনে নিয়ে নির্বাচনে জয়ের ব্যাপারে ব্যাপক উৎসাহ জোগায়।

ছাত্র রাজনীতি থেকেই তিনি দলের নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন। তিনি আদিনা কলেজ শাখা ছাত্রলীগের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন। তারপর আওয়ামী লীগের বিনোদপুর শাখার সদস্য ছিলেন।

বিনোদপুর সহ শিবগঞ্জবাসীর খুব পরিচিত মুখ হচ্ছে এই আহসান হাবিব ওরফে টিটেন বাবুর। ক্ষমতাসীন বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারের সৎ প্রতিনিধি হয়ে গরিব-দুঃখী, অসহায় প্রতিবন্ধী, শ্রমিক’সহ সর্বসাধারণের পাশে থেকে সাহায্য-সহযোগিতা করে আসছেন তিনি। জীবনে অহংকার বা নেতাগীরির কোন আঁচ নেই বললেই চলে তার। সর্বদা হাসিমুখেই জনগণদের নিয়েই অতি-সাধারণ জীবন যাপন তার।

মাদকের বিষাক্ত ছোবল থেকে যুব সমাজকে রক্ষা করতে বারবার খেলার প্রতি আহ্বান ও আয়োজন করেন তিনি। সারাবছরই খেলার সাথে ওতপ্রতভাবে জড়িত থাকতে দেখা যায় আহসান হাবিব টিটেন বাবুকে। সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, আমার উদ্দেশ্য একটাই তরুণ, যুব সমাজ ও ভবিষ্যৎ প্রজন্ম যেন খেলাধুলা ছেড়ে মাদকে আসক্ত না হয়।

সরেজমিনে মাঠপর্যায়ে ঘুরেফিরে ব্যাপক জনপ্রিয়তা দেখা যায় তার। মাঠ পর্যালোচনায় তার এ জনপ্রিয়তাকে সাহস জুগিয়েছে ইউপি নির্বাচনে তিনি বিপুল ভোটে জয়লাভ করবেন।

আহসান হাবিব টিটেন বাবু আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু কণ্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা যদি আমাকে মনোনীত প্রার্থী হিসেবে স্বীকৃতি দেন অর্থাৎ নৌকার মাঝি হিসেবে মনোনয়ন দেন তাহলে আমি অবশ্যই জয়লাভ করবো ইনশাআল্লাহ্।

এদিকে অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আলহাজ্ব মোঃ ইসরাইল হেসেন জানান, আহসান হাবিব টিটেন বাবু জনগণের কাছে বেশ পরিচিত। চেয়ারম্যান হিসেবে নেতৃত্বদানে তার সকল প্রকার যোগ্যতা রয়েছে। আমি ব্যক্তিগত হিসেবে তাকে পছন্দ করি।

অন্যদিকে শিবগঞ্জ উপজেলা শাখা আওয়ামী লীগের সদস্য ডা. আমিনুর রহমান চুটু জানান, আহসান হাবিব টিটেন বাবু আমাদের নয়নের মণি। তাকে আমরা সমর্থন করি এবং তিনি নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করলে জয় ছিনিয়ে নিতে পারবেন আশা করি।

ভবানীপুর আলিয়া মাদ্রাসার অধ্যক্ষ আলহাজ্ব মাওলানা মোঃ শহিমুদ্দীন (অব.) প্রিন্সিপাল ও অবসরপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ব্রাইন’সহ বিনোদপুরের সর্বস্তরের মানুষ একইভাবে তাকে সমর্থন ও সাহস জুগিয়েছেন। আহসান হাবিব টিটেন বাবু সকলের দোয়া প্রার্থী।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে