বাংলাদেশ এলডিসি থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণে জাতিসংঘের চুড়ান্ত সুপারিশ প্রাপ্তিতে সুনামগঞ্জ পুলিশের উদ্যোগে মুক্তিযোদ্ধা সমাবেশ

0

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি ঃঃ
কেক কাটা সহ নানান কর্মসূচীর মধ্যে দিয়ে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ উপলক্ষে বাংলাদেশ এলডিসি থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণে জাতিসংঘের চুড়ান্ত সুপারিশ প্রাপ্তিতে আনন্দ উৎসবে মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রবিবার বিকেলে সুনামগঞ্জ জেলা পুলিশের উদ্যোগে সদর মডেল থানা প্রাঙ্গণে এই আনন্দ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সুনামগঞ্জের পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে ও সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. শহিদুুর রহমানের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন,সুনামগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য এড. পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ।

সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন,সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নুরুল হুদা মুকুট,জেলা প্রশাসক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন,জেলার সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার হাজী নুরুল মোমেন,সাবেক ডেপুটি কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু সুফিয়ান,ওসি তদন্ত মো. নুর আলম ও জেলা জাতীয় পার্টির সদস্য সচিব মো. মণির উদ্দিন মনির প্রমুখ।

নেতৃবৃন্দরা বলেন,১৯৭১ সালের ৭ই মার্চের ভাষনে এটা প্রমানিত হূেয়ছিল বঙ্গবন্ধুর ডাকে মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা অর্জিত হয়েছিল। তার ডাকে সারাদেশের বীর বাঙ্গালীরা অস্ত্র হাতে তুলে নিয়ে মুক্তিযুদ্ধ করে এই দেশ স্বাধীন করেছিলেন। তার পর প্রমাণ হলো ৭ই মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ। তারা আরো বলেন,জাতির পিতার নেতৃত্বে এই দেশটি একটি স্বাধীন ভূখন্ড,একটি লাল সবুজের পতাকা ফেলেও স্বাধীনতার দীর্ঘ ৫০ বছরে আজ তার সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এলডিসি থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণে জাতিসংঘের চুড়ান্ত সুপারিশ পেয়েছে।

তারা বলেন প্রধানমন্ত্রী আরো এক দশক রাষ্্িরয় ক্ষমতায় অধিষ্টিত থাকলে সত্যি বাংলাদেশ বিশে^ একটি উন্নত সমৃদ্ধ ধনী দেশে পরিণত হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। পরিশেষে উপস্থিত সকলেই ১৯৭৫ সালের ১৫ই আগষ্ট স্বাধীনতা বিরোধীদের বুলেটে শহীদ জাতির পিতাসহ তার পরিবারের সকল সদস্যসহ ত্রিশলাখ শহীদ ও দুলাখ মাবোনের ইজ্জতের বিনিময়ে অজির্ত সকল বীর শহীদের আত্মার শান্তি কামনা করেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে