জাতীয় প্রেস ক্লাবে মোমিন মেহেদীকে লাঞ্ছিতর ঘটনায় উদ্বেগ

0

ডেস্ক জাতীয় প্রেস ক্লাবের কর্মচারি সাইফুর ও সহযোগি কর্তৃক মোমিন মেহেদীকে লাঞ্ছিত করার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চেয়েছেন বিভিন্ন মহল। নতুনধারা বাংলাদেশ এনডিবির প্রেসিডিয়াম মেম্বার ভাষাসৈনিক-বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মান্নান আজাদ, ভাষাসৈনিক ফজলুল হক, ভাষাসৈনিক রেজাউল করিম, সেভ দ্য রোড-এর চেয়ারম্যান ও সোনাগাজী উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান জেড এম কামরুল আনাম, অনলাইন প্রেস ইউনিটির উপদেষ্টা অধ্যাপক শুভঙ্কর দেবনাথ, মানবাধিকার বাংলাদেশ-এর চেয়ারম্যান শান্তা ফারজানা ও মহাসচিব সোনিয়া দেওয়ান প্রীতি, প্রবাসী সাহিত্যিক পরিষদের সভাপতি প্রকৌশলী এসবিএম ইকবাল, অস্ট্রেলিয়া সাংস্কৃতিকধারার সভাপতি বেলাল ঢালী, বীর মুক্তিযোদ্ধা আমজাদ হোসেন মাস্টার, মেহেন্দীগঞ্জ জেলা বাস্তবায়ন পরিষদের পৃষ্টপোষক নিজাম উদ্দীন আহমদ প্রমুখ।

উল্লেখ্য, মোমিন মেহেদীর প্রথম লেখা প্রকাশিত হয় ১৯৯৫ সালে দৈনিক ইত্তেফাকে। কাজ করেছেন দৈনিক যুগান্তর, দৈনিক সমাচার, দৈনিক খবরপত্র সহ বিভিন্ন কাগজে। পেশাগতভাবে যুক্ত রয়েছেন প্রকাশনা ও প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান সাউন্ডবাংলা’র নির্বাহী পরিচালক হিসেবে। ২০০৫-৬ সালে ঢাকা বিশ^বিদ্যালয় ছাত্র অধিকার আন্দোলন জোটের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্বপালনকারী মোমিন মেহেদীর নেতৃত্বে ২০১২ সালের ৩০ ডিসেম্বর হাজার নেতাকর্মীর রেডর‌্যালীতে আত্মপ্রকাশ করে নতুনধারা বাংলাদেশ এনডিবি।

নির্বাচন কমিশনে আবেদনকৃত এই রাজনৈতিকধারা দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে-দুর্নীতি বন্ধের দাবি সহ বিভিন্ন গণমূখি ইস্যুতে রাজপথে থেকেছে সবসময়। করোনা পরিস্থিতিতে বিভিন্ন দাবি আদায়ে অনশন করার পাশাপাশি ক্ষুধার্তদেরকে খাদ্য সামগ্রী দিয়ে অবিরাম পাশে ছিলো।

বিভিন্ন দৈনিকে কলাম লিখে চলা বহুগ্রন্থ প্রণেতা-রাজনীতিক মোমিন মেহেদী গত ২৮ ফেব্রুয়ারি রাত সাড়ে ৬ টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক অনুষ্ঠান শেষে বের হওয়ার সময় অতর্কিত তাঁর উপর হামলা করে সাইফুর ও তাঁর সহযোগিরা। এসময় তাঁর সাথে থাকা কবি বিমল সাহা সহ অন্যান্যরা হামলাকারিদেরকে নিবৃত করেন।

এ বিষয়ে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি কবি হাসান হাফিজকে মুঠোফোনে জানানো হলে তিনি বিষয়টি দেখছেন বলে জানান। পরে যেহেতু জাতীয় প্রেসক্লাবের মত একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠানে ন্যাক্কারজনক এই ঘটনা সংগঠিত হয়েছে, সেহতেু আইনের দ্বারস্থ না হয়ে প্রতিষ্ঠানের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক বরাবর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চেয়ে লিখিত আবেদন করার সময় সাধারণ সম্পাদক বরেণ্য সংবাদযোদ্ধা ইলিয়াস খান দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, নিয়ম অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অন্যদিকে নতুনধারা বাংলাদেশ এনডিবির ৪৪ জেলা, ১০২ উপজেলা কমিটির নেতৃবৃন্দ জাতির বিবেক খ্যাত সাংবাদিকদের আশ্রয়স্থল জাতীয় প্রেস ক্লাবের মত প্রতিষ্ঠানে নতুনধারার রাজনীতির প্রবর্তক কলামিস্ট মোমিন মেহেদীর সাথে এমন ন্যাক্কারজনক ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক বিচার না পেলে আইনের আশ্রয় নেয়ার পক্ষে সমর্থন দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন নতুনধারার মহাসচিব নিপুন মিস্ত্রি।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে