ঝালকাঠিতে একই পরিবারের ৫ জনকে পিটিয়ে হাত-পা ভেঙে রক্তাক্ত জখম করেছে প্রতিপক্ষরা

0

ঝালকাঠিতে একই পরিবারের ৫ জনকে পিটিয়ে হাত-পা ভেঙে রক্তাক্ত জখম করেছে প্রতিপক্ষরা। ঘটনাটি শনিবার দুপুর ১টার দিকে ঝালকাঠি সদর উপজেলার বাসন্ডা ইউনিয়নের বাদলকাঠি গ্রামের বারেক হাওলাদারের বাড়ির সামনে জমি-জমা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে ঘটে।
আহত ফিরোজ আলম জানায়,আমাদের জমিতে ট্রাক্টর দিয়ে চাষ করার সময় হঠাৎ ১০/১৫ জনের একটি সন্ত্রাসী বাহিনী লাঠি সোঁটা নিয়ে আমাদের উপর আক্রমণ করে। আমাদেরকে শাপলা পিটান পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে মাটিতে ফেলে চলে যায় তারা। স্থানীয়রা আমাদের কে ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে কর্তব্যরত ডাক্তার ৫জনকে বরিশাল শেরে-বাংলা মেডিকেল হাসপাতালে রেফার করে। বর্তমানে বরিশাল মেডিকেলে চিকিৎসাধীন আছি। আহতরা হলো, মো.জুয়েল পিতা.মৃত: ঝালাল হাওলাদার তার ডান হাত ভেঙে দিয়েছে ও মাথা ফাটিয়ে দিয়েছে। আমি ফিরোজ আলম আমার মাথা ফাটিয়ে দিয়েছে। মন্টু কে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করেছে। আমার ভাই গিয়াসের নাক ফাটিয়ে দিয়েছে,আর একভাই ছালামের নাক ফাটিয়ে দিয়েছে। এদের নেতৃত্বে ছিলও- হারুন,বাদলকাঠি গ্রামের নাদীম মেম্বারের পিতা রুহুল আমিন,রফিক,নাসির,জয়শি গ্রামের কালাম হাওলাদারের সাথে কয়েকদিন আগে কোরআন শরীফ নিয়ে শপথ করেছে তারা। এলাকায় এরা সন্ত্রাসী কর্মকান্ড থেকে শুরু করে সব কাজ করে এই বাহিনীর সদস্যরা। আহত ফিরোজ আলম আরো বলেন,আমরা থানায় জানিয়েছি ও মামলা প্রক্রিয়াদিন রয়েছে।
এ ব্যাপারে প্রতিপক্ষের নাদীম মেম্বার এর কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান,এদের সাথে দীর্ঘদিন থেকে জমি-জমা নিয়ে বিরোধ চলমান। আজ ট্রাক্টর নিয়ে আমার পক্ষের কালামেরা জমি চাষ করতে গেলে উভয় পক্ষের মধ্যে মারামারি হলে এরা ইনজুরি হয়েছে ও আমাদের পক্ষের কালাম নামের এক জন আহত হয়েছে।#

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে