রুহিয়ায় দুই রাস্তার বেহাল অবস্থা জরুরি ভিত্তিতে সংস্করণের দাবী এলাকাবাসীর

0

রুহিয়া(ঠাকুরগাঁও)প্রতিনিধিঃ রুহিয়া থানাধীন রুহিয়া পুকুরপাড় থেকে সেনিহাড়ী এবং কর্ণফুলী থেকে চৌরঙ্গী (বাদিয়া) মার্কেট রাস্তা দুটি বেহাল দশায় পরিনত হয়েছে। যার ফলে রাস্তাটিতে সাধারণ মানুষের চলাচল করাই দুষ্কর হয়ে পড়েছে। যানবাহন চলাচলে জনদুর্ভোগ চরমে পৌঁছেছে।
সরেজমিনে দেখা যায়, রুহিয়া কর্ণফুলী থেকে বাদিয়া মার্কেট ২কিলোমিটার এবং রুহিয়া পুকুরপাড় থেকে সেনিহাড়ী ২ কিলোমিটার পাকা রাস্তা। আর এই রাস্তা দু’টিতে প্রতিদিন কয়েকশত গাড়ি চলাচল করে থাকে। কিন্তু রাস্তার সংস্কার নেই দীর্ঘদিন। রাস্তার মাঝে মাঝে পিচ উঠে গিয়ে ছোটবড় অনেক খানা খন্দের সৃষ্টি হয়েছে। সে সাথে অবৈধ ভাবে মাহেন্দ্র গাড়ী দিয়ে মাটি কাটাকাটি করায় দু’ধার ভেঙে গিয়ে সংকুচিত হয়ে পড়েছে পাকা রাস্তা দু’টি। যা ফলে প্রায় ঘটছে দুর্ঘটনা।

এই বিষয়ে সেনিহাড়ীর মিলন, রুহিয়ার রাসেল ও বাদিয়া মার্কেট এর আইজুল সহ একাধীক ব্যক্তিরা জানান, প্রতিদিন এ রাস্তা দিয়ে ট্রাক, ট্রাক্টর, ভটভটি, অটোরিকশা, ভ্যান, বাইসাইকেল, মোটরবাইকসহ অসংখ্য যানবাহন চলাচল করে। ঝুঁকিপূর্ণ এ রাস্তায় চলাচল করতে গিয়ে দুর্ঘটনার শিকার হয়ে অনেকেই এবং কি এজনের মিত্যু হয়েছে। এ অবস্থায় রাস্তাাটি জরুরি ভিত্তিতে সংস্কারের প্রয়োজন।

১নং রুহিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মনিরুল হক বাবু জানান, আমি রাস্তা সংস্করণ এর জন্য উর্ধতন কর্মকর্তাদের জানিয়েছি। আশা করি খুব শীঘ্রই রাস্তার মেরামত শুরু হবে।
উপজেলা নির্বাহী প্রকৌশলী অফিসার ইসমাইল হোসেন বলেন, স্থানীয় কিছু মহেন্দ্র গাড়ি ও টলি মাটি কাটার জন্য অবৈধ ভাবে উঠানামা করে রাস্তা গুলো নষ্ট করছে। এ বিষয়ে স্থানীয় চেয়ারম্যানদের বলা রয়েছে। যদি কেউ মাটি কাটার জন্য রাস্তা ভেঙ্গে ¯িøপিং তৈরী করে রাস্তা নষ্ট করেন সেটা আমাদের জানালে আমরা তা আইনগত ব্যবস্থাগ্রহণ করব। তবে চলতি অর্থবছরে বাজেট শেষ, তাই আগামী অর্থবছরে রাস্তা গুলো সংস্করণ করা হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে