মনোনয়ন প্রত্যাহার না করে অনড় আ. লীগের ৭ বিদ্রোহী

0

রাণীশংকৈল প্রতিনিধি : ঠাকুরগাঁও রাণীশংকৈল পৌরসভা নির্বাচনে আ’লীগের ৭ ও বিএনপি’র ১ বিদ্রোহী মেয়র প্রার্থী শেষ পর্যন্ত অনড় থাকলেন তাদের সিদ্বান্তে।

মঙ্গলবার বিকেল ৫টা পর্যন্ত মনোনয়ন প্রত্যাহারে শেষ দিন থাকলেও আ’লীগ,বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থীরা কেউ মনোনয়ন প্রত্যাহার করেন নি।

আ. লীগের মনোনীত প্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমানের বিদ্রোহীরা হলেন, পৌর আ’লীগের সম্পাদক ভিপি রফিউল ইসলাম উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ও বর্তমান মেয়র আলমগীর সরকার যুবলীগের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল খালেক উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি নওরোজ কাউসার কানন আ’লীগ নেতা ইসতেগার আলী পৌর’আ’লীগের সদস্য ও উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সম্পাদক সাধন বসাক সাবেক ছাত্রলীগ নেতা রুকুনুল ইসলাম ডলার। বিএনপি মনোনীত প্রার্থী মাহমুদুন নবী পান্না বিশ্বাসের বিদ্রোহী প্রার্থী হলেন পৌর বিএনপির সদস্য সাবেক মেয়র মেখালেসুর রহমান। বিএনপির এ বিদ্রোহী আবার উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান ও পৌর বিএনপির সহ-সভাপতি জবিবর রহমান এবং সম্পাদক খলিলুর রহমানের বড় ভাই।

প্রার্থীতা প্রত্যাহার না করা প্রসঙ্গে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি নওরোজ কাউসার কানন ও পৌর বিএনপির সম্পাদক রফিউল ইসলাম বলেন, স্থানীয় জনপ্রিয়তাকে প্রাধান্য না দিয়ে এবং পৌরসভা নির্বাচনে মনোনয়ন প্রত্যাশার আশায় যারা ইতিমধ্যে পৌরসভায় বিভিন্ন সামাজিক কর্মকান্ডসহ রাজনীতিতে বেশ সময় দিয়েছেন সে-সব প্রার্থীদের কাউকেই মূল্যায়ন না করাই দলের প্রার্থীর বিরুদ্ধে এত বিদ্রোহী।

তারা অভিযোগ করে বলেন, যাকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে সে একজন ব্যাবসায়ী রাজনীতিতে তেমন সময় দেয় নি। তাছাড়া নির্বাচন করারও তার কোন পূর্ব প্রস্তুতি ছিল না। অজ্ঞাত কারণেই তাকে জেলা ও উপজেলা আ’লীগের কতিপয় নেতারা মনোনয়ন পাইয়ে দিয়েছেন।

বর্তমান পৌর মেয়র আলমগীর সরকার বলেন, আমি বিগত পাঁচ বছর সুনামের সহিত পৌরসভা চালিয়ে এসেছি। স্থানীয় ভোটারদের মাঝে আমার জনপ্রিয়তাও কম নেই। তারপরেও আমাকে মনোনয়ন দেয়নি। তাই আমি স্থানীয় নেতাকর্মি ও সাধারণ ভোটারদের অনুরোধে প্রার্থী হয়েছি। তাছাড়াও নির্বাচনে তিনি জয়ী হবেন বলেও মন্তব্য করেন। তবে বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী মোখলেসুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব না হওয়ায় তার বক্তব্য নেওয়া যায় নি।

উপজেলা নির্বাচন অফিসার আখিঁ সরকার জানিয়েছেন, মনোনয়ন ফরম দাখিলের শেষ দিন গত ১৭ জানুয়ারীর পর্যন্ত মেয়র পদে ১২ জন কাউন্সিলর পদে ৩৩ জন সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ১৩ জন মনোনয়ন ফরম পৌরসভা নির্বাচন রিটানিং কর্মকর্তার দপ্তরে দাখিল করেন। গত ১৯ জানুয়ারী প্রার্থীতা যাচাই বাছাইয়ে শেষে সকলের মনোনয়ন বৈধ ঘোষনা করা হয়।

মঙ্গলবার (২৬ জানুয়ারি) বিকেল ৫টা প্রর্যন্ত মনোনয়ন ফরম প্রত্যাহারের শেষ দিন। সেদিন পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী ফজলুর রহমান পারিবারিক সমস্যার কারণ দেখিয়ে তার প্রার্থীতা প্রত্যাহার করেছেন। তাছাড়া আর কোন প্রার্থী মনোনয়ন ফরম প্রত্যাহার করেনি। আগামীকাল বুধবার প্রতিক বরাদ্দ দেওয়া হবে বলেও তিনি জানান।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে